Bdnews Live24 | logo

১০ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সড়কের কাজে ধীরগতি, জনমনে অসন্তোষ, নিন্দা জানিয়েছেন সাবেক ছাত্রনেতা মিফতাব উদ্দিন জলিল!

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১, ০২:২৫

সড়কের কাজে ধীরগতি, জনমনে অসন্তোষ, নিন্দা জানিয়েছেন সাবেক ছাত্রনেতা মিফতাব উদ্দিন জলিল!

সাহেদ আহমেদঃ মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার জুড়ী-ফুলতলা-বটুলি শুল্ক স্টেশন সড়কের উন্নয়নকাজ দুই বছর আগে শুরু হয়েছিল। কিন্তু নির্ধারিত সময়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ শেষ করতে পারেনি। পরে মেয়াদ বাড়িয়ে দেওয়া হয়। সেই মেয়াদও পার হওয়ার পথে। এর মধ্যে এখন পর্যন্ত মাত্র অর্ধেক কাজ শেষ হয়েছে। উপজেলা সদর থেকে বটুলি শুল্ক স্টেশন পর্যন্ত ভাঙাচোরা প্রায় ২২ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কটি প্রশস্ত ও মজুবতকরণের কাজ ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে শুরু হয়। এর ব্যয় নির্ধারণ করা হয় প্রায় ৭২ কোটি টাকা।
কাজের ধীরগতিতে এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগে পড়েছে। এ নিয়ে ৯০ এর সৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের অগ্র-সৈনিক, কুলাউড়া থানা ছাত্রলীগের রাজ পথের লডাকু সৈনিক, ফুলতলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগ এর প্রতিষ্টাতা সভাপতি, ফুলতলা ইউনিয়নে জন্ম নেওয়া যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মিফতাব উদ্দিন জলিল তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন সঠিক সময়ে সড়কের কাজ শেষ হচ্ছেনা বিষয়টি খুবই দুঃখজনক, এলাকায় এত দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গ থাকতে কাজ আটকে থাকা অনেকটা রহস্যমজনক বলে মনে করেন। তাছাড়া তিনি এই কাজটি যাতে দূত শেষ হয় সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে জোর তাগিদ দেন, না হয় এলাকার জনগণকে সাথে নিয়ে কঠোর হবার হুশিয়ারি দেন।

উল্লেখ্য সড়কের কাজে ধীরগতি ও ধুলার কারণে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ১০ ফেব্রুয়ারি উপজেলা সদরের ভবানীপুর এলাকায় প্রায় এক ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখেন। ১৩ ফেব্রুয়ারি উপজেলা পরিষদের একটি কর্মসূচিতে যোগ দেন পরিবেশমন্ত্রী শাহাব উদ্দিন। এ সময় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা সড়কটির কাজে ধীরগতির কারণে জনদুর্ভোগের কথা তুলে ধরেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রী বলেন, ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে মানুষ দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। সড়ক বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন। তাঁরা ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন বলেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সাইট প্রকৌশলী মতিউর রহমান বলেন, কিছুদিন বন্ধের পর তাঁরা পুনরায় সড়কটির কাজ শুরু করেছেন। সড়কে দু-একটি কালভার্ট নির্মাণের কাজ এখনো বাকি। মার্চ মাসের প্রথম দিকে সড়কের প্রথম তিন কিলোমিটার জায়গায় কার্পেটিংয়ের কাজ শুরু করা যাবে বলে আশা করছেন। তবে ৩১ মার্চের মধ্যে পুরো কাজ সম্ভব হবে না।
সড়কের ১০ কিলোমিটার অংশের উপঠিকাদার শহিদুল আলম বলেন, ফুলতলা বাজার থেকে বটুলি শুল্ক স্টেশন পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিলোমিটার জায়গা প্রশস্ত করতে হবে। এ ব্যাপারে সওজ অধিদপ্তরের কাছ থেকে এখনো কোনো অনুমোদন মেলেনি। তাই ওই স্থানে কাজ শুরু করানো যাচ্ছে না। আর বাকি পাঁচ কিলোমিটারের কাজ দ্রুত শুরু করবেন।
সওজ মৌলভীবাজার কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জিয়া উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, ঠিকাদারকে বারবার তাগিদ দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু কাজের অগ্রগতি হচ্ছে না। এ পরিস্থিতিতে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।

সূত্রঃ প্রথম আলো।



এ সংবাদটি 66514 বার পড়া হয়েছে.
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  




bdnewslive24.com

অস্থায়ী অফিসঃ বন্ধন বি- এয়ারপোর্ট-রোড, আম্বরখানা সিলেট।

ই-মেইলঃ admin@bdnewslive24.com

নিউজঃ 01737-969088

বিজ্ঞাপনঃ 01892-475100

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বে-আইনি।

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সাহেদ আহমদ।

 

প্রধান উপদেষ্টাঃ কবির উদ্দিন।

সম্মানিত উপদেষ্টাবৃন্দঃ এডভোকেট নাসির উদ্দিন খাঁন, মোহাম্মদ বাদশা গাজী, মোঃ ইসলাম উদ্দিন।

 

বিডি নিউজ লাইভ ২৪ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।  © ২০২১

          Design & Developed BY: Cloud Service BD